বায়না

Must read

পঞ্চমে বৃত্তি পাওয়া ছেলেটা যেদিন বৃত্তি পাওয়াকেই জীবনের লক্ষ্য ভেবেছিল, ওইদিন সে নিজ হাতে ভাতও খেতে পারত না। এরপর যখন বুঝল যে, পঞ্চম ছিল নিতান্তই এক টুকরো কাল্পনিক চরিত্র, ততক্ষণে সে অষ্টমেও বৃত্তি পেয়ে গিয়েছে। কী আশ্চর্য! ছেলেটি সেদিনও আরও একবারের জন্য ধোঁকা খেয়ে দেখল জীবনের প্রথম পরীক্ষাই এখনো না-কি দেওয়া হয়নি। এরপর ছেলেটার যখন খোঁচা খোঁচা দাঁড়ি, তখন সে এসএসসিতে সমাজের মন জয় করার মতো একটা কিছু করে বসে আছে। ভাবল, এই বুঝি জীবনে করার মতো কিছু একটা করতে পারলাম এতদিনে। সমাজ তো তাই বলবে আরকি!

সোনামুখো সমাজ সেদিনও তাকে ছাড়ল না। ওই হায়ার সেকেন্ডারি না উতরাতে পারলে না-কি কলম ধরার যোগ্যতাও আসে না! ওমা, সে কেমন কথা! এতগুলো পাশ দেওয়ার দাম নেই? ধুর, কী আর করার, সমাজের চোখে তো আর আঙুল তোলা যায় না!

ততদিনে ছেলেটা হায়ার সেকেন্ডারি পাশ করবে করবে এমন অবস্থায় দেশে এলো ঘোর বিপদ। অগত্যা ছেলেগুলোকে বিনা পরীক্ষাতেই পাশ করিয়ে দেওয়া হলো একরকম দায়ে পড়েই‌। কিন্তু সোনামুখো সমাজের এখানেও কথা থেকে যায়। বলে কিনা, ওরা নাকি দয়ায় পার পেয়ে গেল! কী সাংঘাতিক কথা বলো তো, ঘোর বিপদে কোনো যুক্তি চলে না-কি আবার!

সমাজ অবশেষে বায়না ধরল আরেকখানা, “এতকাল তো বাপের অন্ন ধ্বংস করেই গেলে, এবার যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের চৌকাঠে পা না পড়ে, তবে তো বাপ-মায়ের জীবন বৃথা আর তুমি বাছা আমাদের বাস্তবতার কীট।”

ছেলেটি সেবারও সমাজের বায়না মিটিয়ে দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিকিট এনেছিল, তবে একটু দেরি হয়ে গিয়েছিল এই আরকি। এই টিকিট পাওয়ার আগেই অন্য এক টিকিটে জীবন নদীর পানি শুকিয়ে গিয়েছে ততক্ষণে। বোকা ছেলেটা হিসেবও করার সময় পেল না নিজেকে কতটুকু সময় দিলো। হিসেবটা করবেই বা কী করে, ওই সোনামুখো সমাজের বায়না মেটাতে মেটাতেই তো বাতি নিভে গেল।

আত্মার আর্তনাদ সেদিনও কেউ শুনল না। শুনবে কী করে, সবাই তো শরীরের মৃত্যুকেই কেবল ছুটি ভাবে; আত্মার মিনতি এখানে বোবা।

– ফারদিন আহমেদ

6 COMMENTS

  1. অসম্ভব সুন্দরভাবে বাস্তবচিত্র লেখার মাঝে তুলে ধরা হয়েছে।খুবই সুন্দর হয়েছে।লেখালেখিটা চালিয়ে যা আরো অনেক লিখা পাবো আশা করি।
    🤗🤗🤗

  2. ki r bolbo DST . e shomajer baynar j shesh nai .. university er por arek bayna Ashe .. chakri namok porer dashottobad grohoner bayna..kortei hbe na korle shey hoy shonamukh shomajer onamukho bojha..

  3. সমাজের বায়না আর বাস্তবতার শিকারে পরিণত হওয়া ছেলেগুলোর কথা তুলে ধরার জন্য অভিনন্দন বন্ধু।

    • ধন্যবাদ বন্ধু। দুআ রাখিস যাতে আল্লাহ লিখে যাওয়ার সামর্থ্য দেয়।

Comments are closed.

Latest article